Ad Space

তাৎক্ষণিক

  • ‘আপত্তিকর’ কাজে বাধা দেয়ায় প্রহরীকে মারধর– বিস্তারিত....
  • বামশক্তি কনসোলিটেড হয়ে দাঁড়াতে না পারলে ফিল ইন দ্য ব্লাংক করে ফেলবে ধর্মীয় শক্তি : আবুল বারকাত– বিস্তারিত....
  • মধ্যম আয়ের দেশ গড়তে হলে ভ্যাটের বিকল্প নেই : ভূমিমন্ত্রী– বিস্তারিত....
  • নাটোরে নির্মাণের ৯ মাসেই ভেঙে পড়েছে কালভার্ট– বিস্তারিত....
  • নাটোরে ইয়াবাসহ চার যুবক আটক– বিস্তারিত....

জাপানে শক্তিশালী ভূমিকম্পের পর সুনামি

নভেম্বর ২২, ২০১৬

সাহেব-বাজার ডেস্ক : জাপানের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে আবারও শক্তিশালী ভূমিকম্প হয়েছে, কয়েকটি স্থানে সাড়ে চার ফুট উচ্চতার সুনামির খবর এসেছে আন্তর্জাতিক গণমাধ‌্যমে। মঙ্গলবার স্থানীয় সময় ভোর ৬টায় (বাংলাদেশ সময় রাত ৩টা) ফুকুশিমা, মিয়াগি, চিবা, আমোরি, আওতে, ইবারাকি প্রদেশ এই ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে।

যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ দপ্তর ইউএসজিএস জানিয়েছে, এই ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল রিখটার স্কেলে ৬.৯। তবে জাপানের আবহাওয়া অধিদপ্তর ৭.৪ মাত্রার কথা বলেছে। শক্তিশালী ওই ভূমিকাম্পের পরের চার ঘণ্টায় ৪.৪ থেকে ৫.৪ মাত্রার অন্তত ১০টি পরাঘাত রেকর্ড করেছে ইউএসজিএস।

শক্তিশালী ভূমিকম্পের পরপরই জাপানে সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়। দুই ঘণ্টা পর সকাল ৮টার দিকে সেন্দায় অঞ্চলে ১ দশমিক ৪ মিটার উচ্চতার (সাড়ে ৪ ফুট) সুনামি রেকর্ড করা হয় বলে খবর দিয়েছে জাপান টাইমস।

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন এনএইচকে জানিয়েছে, সোমা বন্দর এলাকায় ৯০ সেন্টিমিটার সুনামি লক্ষ্য করা গেছে। ২০ সেকেণ্ডের ওই ভূমিকম্পের পর উপকূলীয় অঞ্চলের মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিতে কাজ শুরু হয়েছে।

ফুকুশিমা প্রদেশের প্রায় ৬৮ হাজার মানুষকে সরিয়ে নিতে স্থানীয় সিটি করপোরেশনের সঙ্গে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরাও কাজ করছেন। দুর্গত এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে। বন্ধ রাখা হয়েছে ট্রেন ও বিমান যোগাযোগ। তবে ভূমিকম্প ও সুনামিতে হতাহতের কোনো খবর বা ক্ষয়ক্ষতির বিস্তারিত বিবরণ তাৎক্ষণিকভাবে পাওয়া যায়নি।

জাপান সরকারের মুখপাত্র ও মন্ত্রিপরিষদ সচিব ইয়াসুদা সুগা টোকিওতে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “সরকার তাৎক্ষণিকভাবে সব ধরনের ব্যবস্থা নিতে স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছে। জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে ভূমিকম্প দুর্গত এলাকাগুলোতে। লোকজনকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরে যেতে বলা হয়েছে।”

সাড়ে পাঁচ বছর আগে এই ফুকুশিমাতেই ৯.১ মাত্রার ভূমিকম্পের পর প্রলঙ্করী সুনামিতে পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং তেজস্ক্রিয়া ছড়িয়ে পড়ে। ২০১১ সালের ওই ভূমিকম্প ও সুনামিতে কয়েক হাজার মানুষের মৃত‌্যুর পর সরকার বেশ কিছু পদক্ষেপ নেয়। গত এপ্রিলে ৬ দশমিক ৫ ও ৭ দশমিক ৩ মাত্রার ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত হয় সাড়ে তিন লাখ বাসিন্দার কুমামতো প্রদেশ। ওই দুই দফাভূমিকম্পে ৪৯ জন নিহত হন।