Ad Space

তাৎক্ষণিক

  • ‘আপত্তিকর’ কাজে বাধা দেয়ায় প্রহরীকে মারধর– বিস্তারিত....
  • বামশক্তি কনসোলিটেড হয়ে দাঁড়াতে না পারলে ফিল ইন দ্য ব্লাংক করে ফেলবে ধর্মীয় শক্তি : আবুল বারকাত– বিস্তারিত....
  • মধ্যম আয়ের দেশ গড়তে হলে ভ্যাটের বিকল্প নেই : ভূমিমন্ত্রী– বিস্তারিত....
  • নাটোরে নির্মাণের ৯ মাসেই ভেঙে পড়েছে কালভার্ট– বিস্তারিত....
  • নাটোরে ইয়াবাসহ চার যুবক আটক– বিস্তারিত....

‘নিজস্ব মিডিয়াকর্মী’ চান রামেকের ইন্টার্নরা

নভেম্বর ২১, ২০১৬

নিজস্ব প্রতিবেদক : ‘সঠিক তথ্য’ প্রচারের জন্য ‘নিজস্ব মিডিয়াকর্মী’ চান রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা। সোমবার দুপুর ১২টার দিকে রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এএফএম রফিকুল ইসলামের সঙ্গে দেখা করে ইন্টার্ন চিকিৎসকরা ১০ দফা দাবি জানান। তাদের দাবিগুলোর মধ্যে প্রধান দাবি হাসপাতালে নিজস্ব মিডিয়াকর্মী নিয়োগ দেওয়া।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে রামেক হাসপাতাল ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদের আহ্বায়ক শফিকুল ইসলাম অপু বলেন, ‘হাসপাতালে অনেক সময় অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে। কিন্তু গণমাধ্যমে তথ্য বিকৃতভাবে উপস্থাপন করা হয়। এ জন্য আমাদের দাবি, নিজস্ব মিডিয়াকর্মী। এই মিডিয়াকর্মী হাসপাতালের সব ঘটনার ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করবেন এবং তা প্রমাণস্বরুপ গণমাধ্যমকর্মীদের সরবরাহ করবেন। প্রয়োজনে তা প্রচারের ব্যবস্থা করবেন। এতে আমাদেরও কোনো ভুল হলে তাতে ধরা পড়বে।’

বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এএফএম রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘ইন্টার্নদের ১০ দফা দাবির সবগুলোই যৌক্তিক। হাসপাতালকে চিকিৎসক ও রোগিবন্ধব হিসেবে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে তাদের দাবিগুলো যথাযথ। আর হাসপাতালের স্বার্থেই ‘নিজস্ব মিডিয়াকর্মী’ প্রয়োজন।’

মিডিয়াকর্মীর কাজ কেমন হবে, জানতে চাইলে পরিচালক বলেন, ‘বিষয়টি এখনও চূড়ান্ত হয়নি। হলে জনসংযোগ কর্মকর্তার মতো হবে। এ হাসপাতালে জনসংযোগ কর্মকর্তা নেই। তবে যাকে নিয়োগ দেয়া হবে, তার কাজ জনসংযোগ কর্মকর্তার চেয়েও বেশি হবে। তিনি অডিও-ভিডিও-সব সংগ্রহ করবেন।’

ইন্টার্ন চিকিৎসকদের বেপরোয়া আচরণে গত কয়েকমাস ধরে অস্থির রয়েছে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল। মাঝে মাঝেই রোগির স্বজনরা অভিযোগ তুলছেন, হাসপাতালে রোগিদের সঠিক চিকিৎসা হচ্ছে না। এতে রোগির মৃত্যুর ঘটনাও ঘটছে। এসবের প্রতিবাদ করতে গেলেই ইন্টার্ন চিকিৎসকরা রোগির স্বজনদের ওপর হামলে পড়ছেন। কখনও কখনও রোগির স্বজনদের পিটিয়ে আহত করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হচ্ছে। সম্প্রতি হাসপাতালে এমন দুটি ঘটনা ঘটেছে।

এর প্রতিবাদে রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদ রোববার থেকে রামেকের ইন্টার্নদের বিরুদ্ধে আন্দোলন শুরু করেছে। সাম্প্রতিক সময়ে ঘটে যাওয়া সবগুলো ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ১৫ দিনের আল্টিমেটাম দিয়েছেন সংগঠনের নেতারা। তা না হলে তারা হাসপাতাল ঘেরাও এবং লাঠি মিছিলের হুমকি দিয়েছেন। এর পর দিনই সোমবার ইন্টার্ন চিকিৎসকরা হাসপাতাল পরিচালকের সঙ্গে দেখা করে লিখিত আকারে ১০ দফা দাবি পেশ করলেন।

তাদের দাবিগুলোর মধ্যে অন্যতম কয়েকটি হলো, হাসপাতালে একজন রোগির কাছে দুইজনের বেশি দর্শনার্থী যেতে না দেওয়া, দালালদের অবাধ প্রবেশ বন্ধ করা এবং হাসপাতালের ওয়ার্ডে ইন্টার্নদের সঙ্গে চিকিৎসকদেরও সার্বক্ষণিক উপস্থিতি নিশ্চিত করা।