Ad Space

তাৎক্ষণিক

‘মাদকের সাথে পুলিশের সম্পৃক্ততা পাওয়া মাত্র ব্যবস্থা’

নভেম্বর ২০, ২০১৬

নিজস্ব প্রতিবেদক, চারঘাট : মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স উল্লেখ করে রাজশাহী পুলিশ সুপার মোয়াজ্জেম হোসেন ভূইয়াঁ বলেন, মাদকের সাথে পুলিশ বাহিনীর কারো সম্পৃক্ততা পাওয়া গেলে তাৎক্ষনিক সময়ে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হবে। পরে করা হবে তদন্ত। চারঘাট তথা রাজশাহী অঞ্চলকে মাদক মুক্ত করতে পুলিশের পক্ষ থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

রোববার (২০ নভেম্বর) বিকেলে চারঘাট উপজেলার হলিদাগাছী দ্বীমুখি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে চারঘাট মডেল থানা পুলিশের আয়োজনে সন্ত্রাসবাদ, জঙ্গিবাদ ও মাদক প্রতিরোধ এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি সমাবেশ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, চারঘাট সীমান্তবর্তী উপজেলা হওয়ায় এখানে মাদকসহ সব ধরনের অপরাধ প্রবণতা একটু বেশী। তাই অপরাধ প্রবণতা কমাতে এবং আইনশৃংখলা স্বাভাবিক রাখতে পুলিশের পাশাপাশি জনগনকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। তথ্য দিয়ে পুলিশকে সহযোগীতা করতে হবে।

সন্ত্রাসবাদ, জঙ্গিবাদ আজ সারা দেশেই আতংক সৃষ্টি করেছে। এদের ব্যাপারে দলমত নির্বিশেষে সকলকে সজাগ থাকতে হবে। আপনার এলাকায় কোন ব্যক্তি নিখোঁজ হলেও তাৎক্ষনিক সময়ে পুলিশকে জানান। নতুন আগন্তুক দেখলে তার ব্যাপারে খোঁজ খবর নিন।

চারঘাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নিবারন চন্দ্র বর্মনের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর হোসেন, সিনিয়র সহকারী পুৃলিশ সুপার আসলাম উদ্দিন, সহকারী পুলিশ সুপার সদর সার্কেল জাহিদুল ইসলাম, উপজেলা সহকারী কমিশনার ভুমি জাকিউল ইসলাম, বারিন্দ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের অধ্যক্ষ ডা: রফিকুল আলম, উপজেলা আ’লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক ফকরুল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মিজানুর রহমান আলমাস, পৌর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল হক, সরদহ ইউপি চেয়ারম্যান হাসানুজ্জামান মধু, শলুয়া ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াউল হক মাসুম, উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম, জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অসিত কুমার ঘোষ, উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্ঠান ঐক্য পরিষদের সভাপতি অম্বর কুমার সরকার, পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি স্বপন কুমার কর্মকার, সাধারণ সম্পাদক রাহুল কান্তি ঘোষ, ইমাম সমিতির সভাপতি কাজী সাদিকুল ইসলাম, বাশিস উপজেলা শাখার সভাপতি হাবিবুর রহমান প্রমুখ।