Ad Space

তাৎক্ষণিক

সিরিয়ায় হাসপাতালে বিমান হামলা, শিশুসহ নিহত ৩২

নভেম্বর ১৭, ২০১৬

সাহেব-বাজার ডেস্ক : সিরিয়ার আলেপ্পো শহরের বিদ্রোহী-নিয়ন্ত্রিত পূর্বাংশে সরকারি বাহিনীর বিমান হামলায় একটি হাসপাতাল, ব্লাড ব্যাংক ও বেশ কয়েকটি অ্যাম্বুলেন্স ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে বলে জানা গেছে। মঙ্গল ও বুধবার আলেপ্পোর বিদ্রোহী-নিয়ন্ত্রিত অংশে সরকারি বাহিনীর হামলায় শিশুসহ অন্তত ৩২ জন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে সরকার বিরোধীরা। শিশু হাসপাতালে হামলা চলাকালে হাসপাতালটির পরিচালক তলকুঠুরিতে আশ্রয় নিতে বাধ্য হন বলে জানা গেছে।

রাশিয়ার ঘোষণা অনুযায়ী বিমান হামলা তিন সপ্তাহ বন্ধ থাকার পর মঙ্গলবার থেকে ফের শুরু করা হয়েছে। সরকারি বিমান হামলা ফের শুরু করার কথা সরকার বিরোধীরাও নিশ্চিত করেছে। এরই মধ্যে সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, বড় ধরনের স্থল হামলা শুরুর লক্ষ্যে কয়েকটি যুদ্ধক্ষেত্রে বড় ধরনের সেনা সমাবেশ করা হয়েছে।

যুক্তরাজ্য-ভিত্তিক পর্যবেক্ষক গোষ্ঠী সিরিয়ান অবজারভেটরি জানিয়েছে, বুধবার আলেপ্পোর পূর্বাংশের শার, সুক্কারি, সাখৌর এবং কারাম আল বেইক এলাকায় যুদ্ধবিমান থেকে ক্ষেপণাস্ত্র, হেলিকপ্টার থেকে ব্যারেল বোমা ফেলা হয়েছে এবং এলাকাগুলোতে কামানের গোলাও নিক্ষেপ করা হয়েছে। এসব হামলায় পাঁচ শিশুসহ অন্তত ২১ জন এবং অপর এক উদ্ধারকর্মী নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে অবজারভেটরি। দ্য ইনডিপেন্ডেন্ট ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, বিমান হামলায় বেয়ান শিশু হাসপাতালের অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

হাসপাতালটির পরিচালক ডা. হাতেমের বরাতে অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, হাতেমসহ অনেকে তলকুঠুরিতে আটকা পড়েছেন। বিমানগুলো ওপরে থাকায় তারা বের হতে পারছেন না। পূর্ব আলেপ্পোর পাশাপাশি পশ্চিম আলেপ্পোর অদূরে বিদ্রোহী-নিয়ন্ত্রিত গ্রামীণ এলাকাগুলোতেও বিমান হামলা চালানো হয়েছে। সিরিয়ান অবজারভেটরি জানিয়েছে, বুধবার বাতবো গ্রামে ১৯ জন নিহত হয়েছেন। ২০১১ সালের মার্চে শুরু হওয়া সিরিয়ার গৃহযুদ্ধে এ পর্যন্ত তিন লাখেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন।