Ad Space

তাৎক্ষণিক

  • ‘আপত্তিকর’ কাজে বাধা দেয়ায় প্রহরীকে মারধর– বিস্তারিত....
  • বামশক্তি কনসোলিটেড হয়ে দাঁড়াতে না পারলে ফিল ইন দ্য ব্লাংক করে ফেলবে ধর্মীয় শক্তি : আবুল বারকাত– বিস্তারিত....
  • মধ্যম আয়ের দেশ গড়তে হলে ভ্যাটের বিকল্প নেই : ভূমিমন্ত্রী– বিস্তারিত....
  • নাটোরে নির্মাণের ৯ মাসেই ভেঙে পড়েছে কালভার্ট– বিস্তারিত....
  • নাটোরে ইয়াবাসহ চার যুবক আটক– বিস্তারিত....

উঠছে শীতের টমেটো, দামে হতাশ কৃষক

নভেম্বর ১৫, ২০১৬

সাইফুল ইসলাম, গোদাগাড়ী : শীতের শুরুতেই ‘টমেটোর রাজ্য’ রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলায় জমি থেকে উঠতে শুরু করেছে উন্নতজাতের শীতকালীন হাইব্রীড টমেটো। কিন্তু দাম নিয়ে শুরুতেই হোঁচট খেতে হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় কৃষকরা। ব্যাপক চাহিদা থাকা সত্বেও টমেটোর ভাল দাম না পেয়ে হতাশায় ভুগছেন তারা। বর্তমানে গোদাগাড়ীতে মণ প্রতি কাঁচা টমেটো এক হাজার থেকে এক হাজার ২০০ টাকা দরে পাইকারী বিক্রি হচ্ছে।

উপজেলা কৃষি অফিস জানিয়েছে, সারাদেশে উৎপাদিত মোট শীতকালীন টমেটোর তিন ভাগের দুই ভাগই উৎপাদন হয় গোদাগাড়ীতে। চলতি মৌসুমে এখানে দুই হাজার ৪২০ হেক্টর জমিতে হাইব্রীড জাতের শীতকালীন টমেটোর চাষ হয়েছে। গত বছর প্রায় দুই হাজার ৬০০ হেক্টর জমিতে শীতকালীন টমেটোর চাষ হয়েছিল।

উপজেলার মহিশালবাড়ী গ্রামের টমেটো চাষি জিয়াউর রহমান (৪০) জানান, গত বছর এ সময় মণ প্রতি কাঁচা টমেটো এক হাজার ৬০০ টাকা থেকে এক হাজার ৮০০ টাকা দরে বিক্রি হয়েছিল। কিন্তু এ বছর মৌসুমের শুরুতেই মণ প্রতি কাঁচা টমেটো এক হাজার থেকে এক হাজার ২০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। ফলে আর কিছু দিন পর টমেটোর দাম আরও অর্ধেকে নেমে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

উপজেলার কেশবপুর গ্রামের টমেটো চাষি আবদুল আওয়াল (৫০) বলেন, প্রতি বিঘা জমিতে প্রায় ২০ হাজার টাকা খরচ করে তিনি তিন বিঘা জমিতে টমেটো চাষ করেছেন। গত শুক্রবার তার জমি থেকে প্রথম দফায় চার মণ টমেটো উঠেছে। প্রতি মণ টমেটো বিক্রি করেছেন এক হাজার টাকায়। পরবর্তীতে আরো বেশি পরিমাণে টমেটো উঠবে তার জমিতে। কিন্তু প্রথম দিকেই টমেটোর দাম দেখে হতাশায় ভুগছেন তিনি।

বেজোড়া গ্রামের টমেটো চাষি সৈবুর রহমান (৪৫) জানান, টমেটোর গাছে প্রচুর ফুল আসছে। কিন্তু বহু ফুল ঝরে যাচ্ছে। যে সময় ফুল আসার কথা, ঠিক সে সময় ১০ শতাংশ গাছে পাতা কোঁকড়ানো রোগের আক্রমণ দেখা দেয়। এ কারণে অনেক গাছ উপড়ে ফেলতে হয়। ফলে জমিতে এবার উৎপাদন এমনিতেই কম হবে। এ অবস্থায় টমেটোর ভালো দাম না পেলে কৃষকরা নিশ্চিত ক্ষতির সম্মুখীন হবেন বলে মনে করেন তিনি।

সেখেরপাড়া গ্রামের টমেটো চাষি জহুরুল ইসলাম (৩৮) জানান, জমিতে এখনো টমেটো পাকেনি। কাঁচা টমেটো তুলেই পাইকারী বিক্রি করছেন কৃষকরা। পাইকারী ক্রেতারা কাঁচা টমেটো কিনে কৃত্রিম উপায়ে পাকিয়ে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যাচ্ছেন। পাইকারী ব্যবসায়ীদের কারসাজিতে গত বছরের তুলনায় এ বছর কাঁচা টমেটোর দাম প্রায় অর্ধেক। ফলে কৃষকরা ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন।

এ নিয়ে জানতে চাইলে নাটোর থেকে গোদাগাড়ীতে টমেটো কিনতে আসা শাজাহান আলী (৪৫) নামে এক পাইকারী ক্রেতা বলেন, এবারের মৌসুমটাই খারাপ। ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেটে পাকা টমেটোর দাম কম। এ কারণে বেশি দামে কাঁচা টমেটো কিনলে সেগুলো পাকিয়ে লোকসানে পড়তে হবে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা তৌফিকুর রহমান জানালেন, প্রতিবছর টমেটোর মৌসুমের মাঝামাঝিতে দাম কমে। কিন্তু এবার শুরু থেকেই দাম কম। এ নিয়ে কিছুটা দুশ্চিন্তা থাকলেও হতাশ হওয়ার কিছু নেই বলেই মনে করেন তিনি। দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে পাইকারী ক্রেতা আসলে কয়েকদিনের মধ্যেই টমেটোর বাজারের অস্থিরতা কেটে যাবে বলেও আশা করেন তিনি।