Ad Space

তাৎক্ষণিক

মোহনপুরে কেন্দ্র সচিবের পদে সহকারি শিক্ষক!

নভেম্বর ৯, ২০১৬

নিজস্ব প্রতিবেদক, মোহনপুর : রাজশাহী জেলার মোহনপুর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী মোহনপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে দীর্ঘদিন থেকে প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য থাকার কারণে ভারে ভারাক্রান্ত হয়ে ভেঙ্গে পড়েছে বিদ্যালয়ের শিক্ষা ব্যবস্থা ও প্রশাসনিক কার্যক্রম।

জানা গেছে সহকারী শিক্ষক শেখ মনিরুল ইসলাম ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে অসুস্থজনিত কারণে ভারত গমন করেন। তার অনুপস্থিতিতে বিদ্যালয়ের দৈনন্দিন কার্যক্রম সম্পাদনসহ  জেএসসির ‘কেন্দ্র সচিব’ দায়িত্ব পালনের জন্য সহকারী শিক্ষক সাইফুল ইসলামকে পরীক্ষা পরিচালনা সংক্রান্ত দায়িত্ব দেন।

পরে বিষয়টি জানাজানি হলে রাজশাহী শিক্ষা বোডের্র চেয়ারম্যানের আদেশে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর তরুন কুমার সরকার স্বাক্ষরিত সহকারী শিক্ষক সাইফুল ইসলামকে অব্যাহতি দিয়ে ৯ই নভেম্বর মোহনপুর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা দায়িত্ব প্রদান করেন এবং পরবর্তী আদেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ আদেশ বলবৎ থাকবে বলে পত্রে নির্দেশ দেওয়া হয়।

জানা যায়, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শেখ মনিরুল ইসলাম নোটিশের নিয়মনীতি তোয়াক্কা না করে ক্ষমতার দাপটে প্রভাব খাটিয়ে জ্যেষ্ঠ শিক্ষককে বাদ দিয়ে তার পছন্দমত কনিষ্ঠ শিক্ষককে বিদ্যালয় পরিচালনাসহ অন্যানা দায়িত্ব অর্পন করেন। বিদ্যালয়ের শিক্ষা ব্যাবস্থা ভেঙ্গে পড়াসহ নানা জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে।

এ নিয়ে একাধিকবার প্রধান শিক্ষকের শূন্যপদ পুরণে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় সমস্যা নিরসনের জন্য সংবাদ প্রকাশিত হলেও কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি কর্তৃপক্ষ। উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট শিক্ষার্থীরা ও অভিভাবকসহ এবং এলাকার সুধীজন বিদ্যালয়ের সমস্যা সমাধানের জন্য শূন্যপদে প্রধান শিক্ষক দেওয়ার অনুরোধ জানান তা না হলে এ  অবস্থা চলতে থাকলে বিদ্যালয়টি তার অতীত ফলাফলসহ ঐতিহ্য ও গৌরব হারাবে বলে মনে করেন একাধিক শিক্ষানুরাগী সূধী ও গুনীজন।

এ বিষয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড রাজশাহী পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর তরুন কুমার সরকারের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, কেন্দ্র সচিব হতে হলে প্রথম শ্রেনীর কর্মকর্তা হতে হবে কিন্তু ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শেখ মনিরুল ইসলাম তার ইচ্ছামতো বিধি লঙ্ঘন করে কেন্দ্র সচিবের দায়িত্ব দিয়েছিল সে জন্য সহকারী শিক্ষক সাইফুল ইসলামকে অব্যাহতি দিয়ে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে কেন্দ্র সচিবের দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে।