Ad Space

তাৎক্ষণিক

  • ‘আপত্তিকর’ কাজে বাধা দেয়ায় প্রহরীকে মারধর– বিস্তারিত....
  • বামশক্তি কনসোলিটেড হয়ে দাঁড়াতে না পারলে ফিল ইন দ্য ব্লাংক করে ফেলবে ধর্মীয় শক্তি : আবুল বারকাত– বিস্তারিত....
  • মধ্যম আয়ের দেশ গড়তে হলে ভ্যাটের বিকল্প নেই : ভূমিমন্ত্রী– বিস্তারিত....
  • নাটোরে নির্মাণের ৯ মাসেই ভেঙে পড়েছে কালভার্ট– বিস্তারিত....
  • নাটোরে ইয়াবাসহ চার যুবক আটক– বিস্তারিত....

প্রমাণ করতে পারলে মন্ত্রিত্ব ছেড়ে দেব : ছায়েদুল হক

নভেম্বর ৬, ২০১৬

সাহেব-বাজার ডেস্ক : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে হিন্দু সম্প্রদায়কে গালি বা সাম্প্রদায়িক উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য মৎস‌্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী ছায়েদুল হক। তিনি বলেন, গালি দিয়েছি, এ কথা কেউ প্রমাণ করতে পারলে মন্ত্রিত্ব থেকে পদত্যাগ করব। ক্ষমতাসীন দলের এই নেতার দাবি, তার শত্রুপক্ষের লোকজন ‘উদ্দেশ‌্যপ্রণোদিতভাবে মিথ‌্যা ও বানোয়াট’ এই অভিযোগ ছড়াচ্ছে। রবিবার দুপুরে নাসিরনগর আশুতোষ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

ছায়েদুল হক বলেন, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রানা দাশগুপ্ত কারও কাছ থেকে শুনে বলেছেন, আমি নাকি হিন্দুদের মালাউনের বাচ্চা বলেছি, এটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। কেউ যদি প্রমাণ দিতে পারেন, আমি মালাউনের বাচ্চা বলেছি, তাহলে আমি এখনই মন্ত্রিত্ব ত্যাগ করব।

মন্ত্রী বলেন, একটি শিশুও বলতে পারবে না যে, আমার নিজ নির্বাচনী এলকার অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার পরিবর্তে আমি হিন্দুদের গালিগালাজ করে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় উস্কানি দেব। এ বিষয়টি সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও ষড়যন্ত্রমূলক, যা আমার শত্রুপক্ষই ছড়াচ্ছে।

”আমি মনে করি হিন্দু ভাইবোনদের হেফাজতে যথাযথ ভূমিকা পালনের বদলে নিজেদের মধ্যে একটি মিথ্যা খবরের ভিত্তিতে কাঁদা ছোড়াছুড়ি করা মানেই ক্ষতিগ্রস্তদের আরো হুমকির মধ্যে ঠেলে দেওয়া। হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ এবং বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের মতো সংগঠন আমার বিরুদ্ধে এই ষড়যন্ত্রের ফাঁদে পা দিয়ে আমাকে অভিযুক্ত করায় আমি অত্যন্ত মর্মাহত।”

মন্ত্রী আরও বলেন, ঘটনার পর ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিটি মন্দির ও ঘর-বাড়িতে ঘুরে দেখেছি। ক্ষতিগ্রস্তদের আর্থিক সহায়তাও দিয়েছি। এ ঘটনায় প্রশাসনের কোনো ব্যর্থতা ছিল না।

এ সময় হামলাকারীদের মুখোশ উন্মোচনে সাংবাদিকদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আপনারা অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার মাধ্যমে হামলাকারীদের মুখোশ উন্মোচন করে প্রশাসনকে সাহায্য করুন। একই সঙ্গে এমন কোনো সংবাদ প্রকাশ করবেন না যাতে হিন্দু ভাই-বোনদের মনে ভীতির সঞ্চার হয়।