অক্টোবর ২০, ২০১৭ ৮:০৮ অপরাহ্ণ

Home / slide / বাড়িতে একা পেয়ে ছাত্রীকে ধর্ষণ, শিক্ষক আটক

বাড়িতে একা পেয়ে ছাত্রীকে ধর্ষণ, শিক্ষক আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক, গোদাগাড়ী : রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে সপ্তম শ্রেণি পড়ুয়া এক ছাত্রীর ঘরে ঢুকে তাকে তার শিক্ষক ধর্ষণ করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গ্রামবাসী লম্পট ওই শিক্ষককে হাতেনাতে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।

অভিযুক্ত স্কুল শিক্ষকের নাম শহিদুল ইসলাম (৩৮)। তিনি উপজেলার দিগরাম উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক। নির্যাতিত ওই ছাত্রীও (১৫) একই স্কুলে পড়াশোনা করে। তার বাড়ি উপজেলার জৈটাবটতলা গ্রামে। আর অভিযুক্ত স্কুল শিক্ষক উপজেলার জাহানাবাদ গ্রামের দাউদ আলীর ছেলে। বুধবার রাতে শহিদুল ইসলাম তার ছাত্রীকে ধর্ষণ করেন বলে মামলার এজাহারে বলা হয়েছে।

এজাহারের বরাত দিয়ে গোদাগাড়ী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবদুল লতিফ জানান, বুধবার রাতে ওই স্কুলছাত্রীর পরিবারের সদস্যরা পাশের গ্রামে জালশা শুনতে যান। বাড়িতে ওই স্কুলছাত্রী একাই ছিল। রাত ৯টার দিকে শিক্ষক শহিদুল ইসলাম প্রাচীর টপকে বাড়িতে প্রবেশ করেন। এরপর ওই ছাত্রীর ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করেন। এ সময় ওই ছাত্রী কৌশলে তাকে ঘরের ভেতর আটকে রাখে।

পরে তার পরিবারের সদস্যরা বাড়িতে গেলে এলাকাবাসীর সহায়তায় তাকে আটক করেন। এ সময় গ্রামের লোকজন তাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাখেন। খবর পেয়ে পুলিশ তাকে থানায় নিয়ে যায়। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার সকালে থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেছেন।

গোদাগাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিপজুর আলম মুন্সি জানান, ধর্ষণ মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে সকালে শিক্ষক শহিদুলকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আর নির্যাতিত ছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

Check Also

নাটোরের উত্তরা গণভবনের গাছ কাটায় তদন্ত

নাটোর প্রতিনিধি : উত্তরা গণভবনে গাছ কাটার বিষয়ে ৫ সদস্য বিশিষ্টি একটি তদন্ত কমিটি তদন্ত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *