অক্টোবর ১৭, ২০১৭ ৫:২০ অপরাহ্ণ

Home / slide / গলায় ফাঁস দিয়ে কলেজ ছাত্রীর আত্মহত্যা

গলায় ফাঁস দিয়ে কলেজ ছাত্রীর আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীর দুর্গাপুরে স্বামীর ওপর অভিমান করে ইমা খাতুন (১৭) নামের এক কলেজ ছাত্রী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে।  সে উপজেলার ধরমপুর গ্রামের ইসাহাক আলীর মেয়ে। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

নিহত ইমার স্বজনরা জানান, ইমা খাতুনের প্রায় দেড় মাস পূর্বে বিয়ে হয় উপজেলার মহিপাড়া গ্রামের ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি নজরুল ইসলামের ছেলে সবুজের সাথে। বিয়ের পর থেকেই ইমা খাতুনকে মেনে নিতে পারছিলোনা স্বামী সবুজ। বিষয়টি নিয়ে ইমা খাতুন তার মা-বাবাকে জানিয়েছিল অনেক আগেই। বিয়ের দুই দিন পর থেকেই ইমা খাতুন স্বামীর ওপর অভিমান করে বাবার বাড়ি চলে আসে।

এদিকে, সবুজ ও তার বাবাকে একাধিকবার খবর দেয়া হলেও ঘরের বউকে নিতে আসেনি কেউ। সোমবার রাতে মোবাইল ফোনে সবুজের সঙ্গে শেষ কথা হয় ইমা খাতুনের। মঙ্গলবার সকালে বাড়ির সকলের অগোচরে নিজ ঘরে সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়। প্রতিবেশীরা ঘরের জানালা দিয়ে দেখতে পেয়ে চিৎকার শুরু করলে বাড়ির লোকজন ঘরের দরজা ভেঙ্গে ইমা খাতুনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে আসে। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সালাউদ্দিন তাকে মৃত ঘোষণা করে।

ইমা খাতুনের বাবা ইসাহাক আলী অভিযোগ করে বলেন, সবুজ অন্য একটি মেয়েকে ভালোবাসতো বলে শুনেছি। কিন্তু তার বাবা-মায়ের চাপের মুখে ইমাকে বিয়ে করলেও মন থেকে মেনে নিতে পারেননি। সে কারনে বাসর রাতেই তার মেয়েকে মারপিট করে সবুজ। এ কারনে বিয়ের দুই দিন পর থেকে ইমা তার বাড়িতেই অবস্থান করছিল।

এ ঘটনায় সবুজ ও তার বাবাকে খবর দিলেও ইমাকে নিতে আসেনি তারা। এর জের ধরেই হয়তো তারা মেয়ে অভিমান করে আত্মহত্যা করতে পারে বলে তিনি জানান।

এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্য মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

Check Also

বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা নিশ্চিত করতে সাংবাদিকদের রাষ্ট্রপতি আহবান

সাহেব-বাজার ডেস্ক : রাষ্ট্রপতি এম আবদুল হামিদ বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতা নিশ্চিত করা এবং সাংবাদিকতা পেশায় প্রকৃত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *