দুপুর ২:২৬ শুক্রবার ১৫ নভেম্বর, ২০১৯


শেষ কথায় সবাইকে হাসালেন মাশরাফি

নিউজ ডেস্ক | সাহেব-বাজার২৪.কম
আপডেট : November 8, 2017 , 6:14 pm
ক্যাটাগরি : খেলাধুলা
পোস্টটি শেয়ার করুন

বিপিএলের ৫ম দিনের ১ম ম্যাচে আজ মুখোমুখি হয় রাজশাহী এবগ রংপুর।  সেই ম্যাচের ১৭তম ওভারে ঘটে এক বিরল ঘটনা।  বোলিং এ আসেন শুভাশীষ।  বল করার পরে মাশরাফি শর্ট মারার পরে শুভাশীষের হাতে গিয়ে বল পড়লে তিনি সেটাকে ঢিল মারতে যান।  আর মাশরাফি তাকে বলেন ,’ যা ব্যাটা’।  আর তাতেই ক্ষেপে যান শুভাশীষ।  তেড়ে আসেন মাশরাফির দিকে।

শুভাশিসের সঙ্গে ঘটে যাওয়া বিষয়টি নিয়ে মাশরাফী স্বাভাবিক আচরণ করলেও, তার ভক্তরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হৈ-চৈ শুরু করেছেন।  রীতিমতো ইভেন্ট খুলে শুভাশিসের বিচার দাবি করা হচ্ছে।  এসব দেখে সংবাদ সম্মেলনের পর ভিডিওবার্তায় এসে আরেকবার ক্ষমা চেয়ে সবাইকে বিষয়টি নিয়ে বাড়াবাড়ি না করতে অনুরোধ করেছেন মাশরাফী।
মাশরাফি আরো বলেন ,’

আসসালামু আলাইকুম, আশা করি সবাই ভালো আছেন।  অবশ্যই প্রথমে ধন্যবাদ জানাই চিটাগাং ভাইকিংসকে।  আমাদের সাথে খুব ভালো ক্রিকেট খেলে তারা জিতেছে।  ব্যাট-বল উভয় দিকেই।  তারা ওভারল অসাধারণ ক্রিকেট খেলেছে, আমরাও ম্যাচের কিছু অংশে ভালো খেলেছি, কিন্তু তারা মাদের চেয়েও ভালো খেলে প্রাপ্য জয় তুলে নিয়েছে।

যেজন্য আসলে ভিডিওটা করা, সেটা আমার কাছে মনে হচ্ছে যে বেশি বাড়াবাড়ি হয়ে যাচ্ছে।  এটা এজন্য মনে হচ্ছে যে, অবশ্যই মানুষের কাছ থেকে অনেক ভালোবাসা পেয়েছি, মানুষের কাছ থেকে অনেক বেশি কিছু পেয়েছি।  একই সময়ে আমি মনে করি, শুভাশিষও বাংলাদেশ জাতীয় দলের একজন খেলোয়াড়, তারও ভালোবাসা প্রাপ্য।

মাঠে যেটা হয়েছে সেটা আমি প্রেস কনফারেন্সেও বলে এসেছি, আমি দুঃখিত! সিনিয়র খেলোয়াড় হিসেবে আমার ওভারে রিয়্যাক্ট করা ঠিক হয়নি।  কারণ স্টার্টিংটা বলতেই পারেন আমার থেকে হয়েছে।  কারণ সে হয়তো বলটা ধরে থ্রো করতে চেয়েছিলো, কিন্তু আমি যদি ওভারে প্রতিক্রিয়া না দেখাতাম সে হয়তো আবার চলে যেতো।

তাই আমার জায়গা থেকে আমি সরি বলেছি।  আশা করি আপনারা ব্যাপারটা বুঝতে পারছেন, বুঝতে পেরেছেন।  তাই মাঠের জিনিসটা মাঠের মধ্যেই রাখাই ভালো আমার মতে।

একই সাথে সে একজন খুবই সম্ভাবনাময় ফাস্ট বোলার।  এমন না যে সে কোথাও থেকে হুট করে এসে খেলছে, সেও অনেক লড়াই করে, যুদ্ধ করে বাংলাদেশের জন্য খেলছে, এই কাজটা আমিও করছি খেলার জন্যে।  একজন সাধারণ মানুষ হিসেবেও যদি বলি, আমি যতটুকু সম্মান পাই, তারও ততটুকু সম্মান প্রাপ্য।

আর আজকে যে ঘটনাটা ঘটেছে, এমন অনেক ঘটনাই মাঠে ঘটে থাকে।  এসব ঘটনা সাধারণত আমরা স্বাভাবিক ভাবেই নিয়ে থাকি, কেনো আজকে পারছিনা তা জানিনা।  আমি যে কারণে শুভাশিষের কাছে ক্ষমা চাচ্ছি, অবশ্যই ও আমার ছোট ভাই।  আমার অইসময় অইভাবে বলা ঠিক হয়নি।  ঘটনাটা শুরু করা ঠিক হয়নি, কারণ খেলার অই মুহুর্তে অবস্থাটাই অমন ছিলো।

আশা করি আপনারা সবাই বুঝতে পারছেন আমি কি বুঝাচ্ছি।  আপনাদের কাছে একটাই অনুরোধ, প্লিজ এটা নিয়ে আর বাড়াবাড়ি করবেন না।  আমিও বাংলাদেশ দলে খেলছি, শুভাশিষও খেলছে, আরো দশজনও খেলছে।

আপনাদের কাছে অনুরোধ ঘটনাটা আর বাড়তে দিয়েন না।  তাহলে হয়তো শুভাশিষ এবং আমার জন্য ব্যাপারটা ভালো হবে না।

এবং আবারো চিটাগাং ভাইকিংসকে অভিনন্দন।  শুভাশিষকে তার অসাধারণ বোলিংইয়ের জন্য অভিনন্দন।  এবং একজনের কথা না বললেই হয়।  বিয়ের পর তাসকিন যেভাবে আজকে বোলিং করলো, অসাধারণ ছিলো।  তাকেও অভিনন্দন। ‘