ভোর ৫:২৫ রবিবার ১৭ নভেম্বর, ২০১৯


রাজশাহীতে কোরবানীর পশুর দাম বেশি

নিউজ ডেস্ক | সাহেব-বাজার২৪.কম
আপডেট : August 15, 2018 , 11:02 pm
ক্যাটাগরি : রাজশাহীর সংবাদ,শিল্প ও বাণিজ্য,শীর্ষ খবর
পোস্টটি শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক : গত বছরের তুলনায় রাজশাহীতে এবার কোরবানীর পশুর দাম বেশি। ভারতীয় গরু কম আসার কারণে দাম বেশি বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। এতে ক্রেতারা একটু নাখোস হলেও খুশি খামারিরা। বুধবার রাজশাহীর সবচেয়ে বড় পশুহাট ‘সিটি হাট’ ঘুরে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

আগের মতো নির্ধারিত দিনেই বুধবার এই হাট বসে। তবে আগামী শুক্রবার থেকে এখানে কোরবানী ঈদের আগের দিন পর্যন্ত পশু কেনাবেচা চলবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। বুধবার সিটিহাট বেশ জমজমাট দেখা যায়। গরু-মহিষের মজুতও ছিল যথেষ্ট। তবে দাম বেশির কারণে অনেকে গরু কিনতে হাটে এলেও তাদের দরদাম করেই বাড়ি ফিরতে দেখা যায়।

তাদের একজন নগরীর কাদিরগঞ্জের বাসিন্দা আনোয়ার হোসেন। একটি ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক আনোয়ার বলেন, তার কাছে পশুর দাম বেশি মনে হচ্ছে। তাই বেশি দামে পশু কিনতে হলে আরও দেরি করেই কিনতে চান। এ জন্য ফিরে যাচ্ছেন। আনোয়ার বলেন, ভারতীয় গরুগুলো কিছুটা কম দামে পাওয়া যাচ্ছে। কিন্তু সেগুলো ভালো নয়। তাই তিনি দেশি গরুই কিনবেন।

হাট ঘুরে দেখা গেছে, প্রায় ৬০ কেজি ওজনের একটি ছোট আকারের গরুর দাম ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা চাওয়া হচ্ছে। মাঝারি আকারের গরুর (৮০ কেজি মাংস) দাম ৬০ থেকে ৭০ হাজার ও বড় গরুর (১০০-১৪০ কেজি মাংস) দাম ৯০ থেকে ১ লাখের ওপরে হাঁকানো হচ্ছে।

অন্যদিকে ১০ থেকে ১২ কেজি ওজনের কোরবানির ছাগলের দাম ৯ থেকে ১০ হাজার টাকা, ১৫ থেকে ১৮ কেজি ওজনের ছাগলের দাম ১৪ থেকে ১৫ হাজার টাকা ও ২০ থেকে ২৫ কেজি মাংস হবে এমন ছাগলের দাম হাঁকা হচ্ছে ১৮ থেকে ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত। ছাগলেরও দাম গত বছরের চেয়ে কিছুটা বেশি বলে জানিয়েছেন ক্রেতারা।

রাজশাহী সিটিহাটের ইজারাদার আতিকুর রহমান কালু বলেন, এবার কোরবানী ঈদ ঘিরে হাটে বুধবারই সবচেয়ে বেশি পশু কেনাবেচা হয়েছে। শুক্রবার থেকে প্রতিদিন হাট বসবে। তখন বেচাবিক্রি আরও বাড়বে। এবার ভারতীয় গরু-মহিষ কম আসার কারণে দেশি পশুর দাম বেশি বলেও জানান তিনি।

এসবি/আরআর/এসএস