সন্ধ্যা ৬:২২ বুধবার ২০ নভেম্বর, ২০১৯


পোরশায় পাঁচ পরিবারকে একঘরে রাখার অভিযোগ

নিউজ ডেস্ক | সাহেব-বাজার২৪.কম
আপডেট : May 21, 2019 , 5:36 pm
ক্যাটাগরি : জনদুর্ভোগ,জাতীয়
পোস্টটি শেয়ার করুন

সাহেব-বাজার ডেস্ক : নওগাঁর পোরশায় গত এক মাস থেকে পাঁচটি পরিবারকে একঘরে করে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে গ্রামের মাতব্বরদের বিরুদ্ধে। ওইসব পরিবারের কোনো সদস্যকে মসজিদসহ স্থানীয় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেও যেতে দেয়া হচ্ছে না। এতে ওই পরিবারগুলোর প্রায় ২০-২৫ জন সদস্য অসহায় হয়ে পড়েছেন। উপজেলার মশিদপুর ইউনিয়নের গোরখাই গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে।

জানা গেছে, গোরখাই গ্রামের মৃত শহিদুল ইসলামের পাঁচ ছেলে মজিবুর রহমান, আবদুর রহমান, আইনুল ইসলাম, আবদুর রহিম ও আবদুল লতিফ দীর্ঘদিন একত্রে বসবাস করে আসছেন। তারা পুরইল গ্রামের ইব্রাহীম শাহর একটি পুকুর লিজ নিয়ে মাছ চাষ করে আসছেন। তাদের লিজ নেয়া পুকুরটি জোর দখল ছেড়ে দেয়ার জন্য গ্রামের মাতব্বর ডাবরের ছেলে সাদের ও কাদের, গফুরের ছেলে আবুল কালাম, শমসেরের ছেলে মোকছেদ, মাহবুরের ছেলে মালেকের নেতৃত্বে কিছু লোক ওই পাঁচ ভাইকে চাপ দেন। এতে তারা রাজি না হওয়ায় তাদের এক ঘরে করা হয়। এরপরও থেমে নেই মাতব্বররা। গ্রা

মের মসজিদের ইমামের মাধ্যমে ওই পাঁচ ভাই ও তাদের পরিবারকে মসজিদে নামাজ পড়তে নিষেধ করা হয়। এই রমজান মাসেও তারা মসজিদে নামাজ পড়তে পারছেন না। গ্রামের মসজিদের ইমাম আজাহার আলী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। তিনি মজিবুরকে মসজিদে নামাজ পড়তে দেখেছেন।

তবে এ বিষয়ে মাতব্বররা কোনো কথা বলতে চান না। পোরশা থানার ওসি শাহিনুর রহমান বলেন, এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছেন।

এসবি/জেআর