রাত ১১:১৩ মঙ্গলবার ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০


নদীর চরে আটকে গেল ১০ মন ওজনের মাছ

নিউজ ডেস্ক | সাহেব-বাজার২৪.কম
আপডেট : জানুয়ারি ২৪, ২০২০ , ১০:০৫ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : Uncategorized
পোস্টটি শেয়ার করুন

সাহেব-বাজার ডেস্ক : বরগুনার পাথরঘাটা সদর ইউনিয়নের পদ্মা এলাকার বলেশ্বর নদের চরে দশ মন ওজনের একটি শাপলাপাতা মাছ আটকা পড়েছে। শক্রবার সকাল ৭টার দিকে গ্রামবাসী মাছটি দেখতে পেয়ে তুলে নিয়ে পাথরঘাটা বিএফডিসি পাইকারি মাছ বাজারে প্রকাশে নিলামে বিক্রি করেন।

নিলামে ফিস স্টোর মৎস্য আড়তের স্বত্তাধিকারী মো. রাজু ও আবু হানিফ ৬৩ হাজার টাকায় মাছটি কিনে নেন। পরে বিকাল তিনটার সময় খুচড়া বাজারে প্রতি কেজি সাড়ে ৩শ টাকা দরে কেটে বিক্রি করা হয়। এতে মাছটির দাম পড়েছে এক লাখ ৪০ হাজার টাকা।

পদ্মা গ্রামের পান্না মিয়া জানান, প্রতিদিন রাতে এলাকার জেলেরা বলেশ্বর চরে  চরগড়া দিয়ে মাছ শিকার করেন। প্রতিদিনের মতো গত রাতে গড়া দিলে মাছটি চড়ে আটকা পরে। সকালে জেলেরা গড়া জালে মাছ ধরতে গেলে শাপলাপাতা মাছটি দেখতে পায়। এসময় এলাকার লোকজনের সহযোগিতায় মাছটি কিনারে এনে ট্রাকে তুলে বাজারে নিয়ে আসে জেলেরা।

তিনি বলেন, মাছটি চারদিকে গোলাকার ১১ ফুট ২ ইঞ্চি। লেজটি লম্বায় ১৮ ফিট। ১৬ জন জেলে বাঁশে বেঁধে মাছটি কিনারে তুলেছেন।

পাইকারি ক্রেতা রাজু মিয়া জানান, এই মাছটি হিন্দুদের ( সনাতনীদের) কাছে খুব সুস্বাদু খাবার। এ জন্য অনেকের অনুরোধে পাথরঘাটা বাজারে মাইকিং করে কেটে স্বল্পমূল্যে সবাইকে ভাগ করে দেওয়া হয়েছে। এই ধরণের মাছ সচারাচর পাওয়া যায় না। গত ১০ বছরেও এত বড় মাছ পাথরঘাটা বাজারে ওঠেনি।

পাথরঘাটা মৎস্য অধিদপ্তরের সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম জানান, তারা ধারণা করছেন মাছটি বাচ্চা দিতে সাগর থেকে নদীর কিনারে এসেছিল। চরের ওপর বাচ্চা দিয়ে সাগরে ফেরার পথে চরগড়া জালে বাধা পেয়ে চরের ওপর আটকে যায়।

এসবি/এআইআর