রাত ১১:০৬ মঙ্গলবার ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০


কে হবেন টুর্নামেন্ট সেরা?

নিউজ ডেস্ক | সাহেব-বাজার২৪.কম
আপডেট : জানুয়ারি ১৭, ২০২০ , ১১:১১ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : Uncategorized
পোস্টটি শেয়ার করুন

সাহেব-বাজার ডেস্ক : এবার সাকিব আল হাসানের কথা মনে না পড়ে পারেই না! বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে গত ৬ আসরে তিনবার টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় ছিলেন সাকিব। বাকি তিনবারও লড়াইতে তার নাম ছিল। এবারই প্রথম তিনি কোনো আলোচনাতেই নেই। কারণ, নিষেধাজ্ঞার কারণে বিপিএল তো বটেই, ক্রিকেট থেকেই অনেক দূরে আছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

এবারের হিসাবটাতে সহজ করে ভাবলে আলোচনায় আছেন চার ক্রিকেটার—মুশফিকুর রহিম, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন ও সৌম্য সরকার। এদের মধ্যে মুশফিক ও সৌম্য আবার একটু বেশি এগিয়ে আছেন। বরং সেরাদের আলোচনাটা একটু পরিসংখ্যান দিয়ে করা যাক।

প্রথমে ব্যাটিংয়ের কথা। মুশফিক এখানে নতুন এক দিগন্ত তৈরি করতে পারেন। ফাইনালে ৭ রান করলেই নতুন রেকর্ড গড়বেন তিনি। বিপিএলের ইতিহাসে এক আসরে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডটা তামিম ইকবালের দখলে। ২০১৬ সালে চিটাগং ভাইকিংসের হয়ে ১৩ ম্যাচে ৪৭৬ রান করেছিলেন তামিম। সেবার ৬টি হাফ সেঞ্চুরি করেছিলেন এই বাঁহাতি ওপেনার।

চলমান বিপিএলে খুলনার হয়ে ১৩ ম্যাচে এরই মধ্যে ৪৭০ রান করে ফেলেছেন মুশফিক। যেখানে আছে চারটি হাফ সেঞ্চুরি। দুইবার সেঞ্চুরির দুয়ার থেকে ফিরে এসেছেন তিনি। ফাইনালে ৭ রান করলেই তামিমকে টপকে যাবেন মুশফিক। বিপিএলের চলমান আসরের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকও এখন তিনি।

রানের দিক থেকে দ্বিতীয় স্থানে আছেন রাইলি রুশো। তার রান ৪৫৮। শোয়েব মালিক ৪৪৬ রান নিয়ে আছেন তিন নম্বরে।

বোলারদের প্রতিযোগিতায় সবার ওপরে আছেন মুস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন। আসরের শুরুটা খারাপ করায় মুস্তাফিজের বেশ সমালোচনা হচ্ছিল। তিনি শেষ হয়ে গেছেন, এমন একটা ধারণাও তৈরি হয়ে গিয়েছিল। খোদ একজন নির্বাচক বলেছিলেন, মুস্তাফিজ এখন অনুমেয় হয়ে গেছেন। সেখান থেকে ফিরে এসেছেন মুস্তাফিজ। পরের দিকে দারুণ বল করে ২০ উইকেট নিয়ে এখন তিনি টুর্নামেন্টের সেরা বোলার। অবশ্য যৌথভাবে রুবেল হোসেনও আছেন তার সঙ্গে।

মুস্তাফিজ ১২ ম্যাচে পেয়েছেন ২০ উইকেট। আর রুবেল ১৩ ম্যাচে পেয়েছেন ২০ উইকেট। এবার বিপিএলে উল্লেখযোগ্য ব্যাপার হলো, উইকেট শিকারের ওপরের দিকে থাকা সবাই পেস বোলার। বাংলাদেশের উইকেটে স্পিনারদের যে চিরায়ত দাপট থাকে, সেটা এবার একেবারেই নেই।

উইকেট শিকারের দিক থেকে ১৯ উইকেট নিয়ে ৩ নম্বরে আছেন রবি ফ্রাইলিংক। ১৮টি করে উইকেট আছে মেহেদী হাসান রানা, মোহাম্মদ আমির ও শহীদুল ইসলামের।

এ গেল সোজাসাপটা ব্যাটসম্যান-বোলারদের হিসাব। তবে হিসাবটা একটু বদলে অলরাউন্ডারদের দিকে চলে গেলে সবচেয়ে সুবিধাজনক অবস্থায় আছেন সৌম্য সরকার। গত কিছুদিন ধরেই বোলিংয়ে নতুন করে পারফরম করতে শুরু করেছেন এই পেস বোলিং অলরাউন্ডার।

এবার টুর্নামেন্টে ১২টি উইকেট আছে সৌম্যর। আবার ব্যাটেও দিব্যি রান করছেন। বিশেষ করে মিডল অর্ডারে নেমে যাওয়ার পর রান পাচ্ছেন নিয়মিত। ফলে ৩৩১ রান করে ফেলেছেন তিনি।

এসবি/এআইআর