সকাল ৬:৪৬ রবিবার ১৭ নভেম্বর, ২০১৯


এমপি আতিককে দুদকের তলব

নিউজ ডেস্ক | সাহেব-বাজার২৪.কম
আপডেট : April 5, 2018 , 8:57 pm
ক্যাটাগরি : জাতীয়
পোস্টটি শেয়ার করুন

সাহেব-বাজার ডেস্ক : দুর্নীতির মাধ্যমে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে জাতীয় সংসদের হুইপ শেরপুর-১ আসনের এমপি আতিউর রহমান আতিককে তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। বৃহস্পতিবার ঢাকাস্থ দুদকের প্রধান কার্যালয় থেকে পাঠানো চিঠিতে তাকে আগামী ১৭ এপ্রিল সকাল ১০টায় তাকে ঢাকায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে হাজির হতে বলা হয়েছে।

আতিক শেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি।  তার বিরুদ্ধে নিয়োগ বাণিজ্য, টিআর, কাবিখা, কাবিটার টাকা আত্মসাৎ, স্কুল কলেজ এমপিও করিয়ে ঘুষ নেওয়াসহ নানা ক্ষেত্রে ক্ষমতার অপব্যবহার, অনিয়ম, দুর্নীতির মাধ্যমে শতকোটি কোটি টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ রয়েছে।  এই অভিযোগটি অনুসন্ধান করছেন দুদক উপ পরিচালক কেএম কেএম মিছবাহ উদ্দিন।

প্রাথমিক পর্যায়ের অনুসন্ধানে অভিযোগের বিপরীতে প্রাথমিক কিছু তথ্য-প্রমাণ পাওয়া গেছে। আগামী ১৭ এপ্রিল ওইসব অভিযোগ সম্পর্কে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।  খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শেরপুর শহরের মাধবপুর নামক স্থানে আতিকের ছয় তলা বাড়ি রয়েছে। এই বাড়ির প্রথম তলা থেকে পাঁচ তলা পর্যন্ত সোনালী, অগ্রণী ব্যাংক ও আয়কর অফিসের জন্য ভাড়া দেওয়া হয়েছে। ছয় তলায় তিনি নিজে থাকেন। এই ভবনের পাশে তার নামে আরো একটি তিন তলা ভবনে পাসপোর্ট অফিস ও সোনালী ব্যাংকের এটিএম বুথ ও অনলাইন কার্যক্রমের জন্য ভাড়া দেওয়া হয়েছে।

আতিকের গ্রামের বাড়ি শেরপুর সদর উপজেলার কামারিয়া ইউনিয়নের বারঘরিয়া গ্রামে। কামারিয়া ও বাতশালা ইউনিয়নে তিনি নিজের নামে ১০-১২টি স্কুল, কলেজ ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন। এর মধ্যে আতিউর রহমান মডেল কলেজ, আতিউর রহমান মডেল গার্লস স্কুল, আতিউর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়, আতিউর রহমান আলীম মাদ্রাসা, আতিউর রহমান হোমিও প্যাথিক কলেজ ও হাসপাতাল ও আতিক নগরসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

এমপি আতিকের বিরুদ্ধে দুদকে পেশ করা অভিযোগে বলা হয়, গ্রামের বাড়িতে ৩০ একর জমিতে তার বাগান বাড়ি রয়েছে। রয়েছে ধানী জমি। রাজধানীর বসুন্ধরা, বনশ্রীতে দু’টি প্লট, ধানমন্ডি ও গুলশানে দু’টি ফ্ল্যাট রয়েছে তার নামে। এছাড়ও মেয়াদি আমানত, ব্যাংকে নগদ টাকা, গাড়িসহ নামে-বেনামে স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের তথ্য রয়েছে দুদকের কাছে।

এর আগে বুধবার নরসিংদী-২ আসনের স্বতন্ত্র এমপি কামরুল আশরাফ খান প্রোটনকে ১১ এপ্রিল ও খুলনা-২ আসনের ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের এমপি মিজানুর রহমানকে আগামী ১৬ এপ্রিল তলব করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধেও দুর্নীতির মাধ্যমে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ রয়েছে।

এসবি/এসএস